ইজি বাইক চোর সিন্ডিগেটর খুলনা বিভাগীয় প্রধানের তেলেছ মাতি, ভুক্তভোগী প্রশাসনের কাছে নিরাপত্তা চেয়ে সংবাদ সম্মেলন - দৈনিক আজকের দুর্নীতি
ঢাকারবিবার , ১৭ জুলাই ২০২২

ইজি বাইক চোর সিন্ডিগেটর খুলনা বিভাগীয় প্রধানের তেলেছ মাতি, ভুক্তভোগী প্রশাসনের কাছে নিরাপত্তা চেয়ে সংবাদ সম্মেলন

নিজস্ব প্রতিবেদক
জুলাই ১৭, ২০২২ ১২:৫০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

যশোর অফিস
আজ রবিবার দুপুর ১২ টার সময় যশোর প্রেশক্লাবে আন্তর্জাতিক ইজি বাইক চোর সিন্ডিগেটর খুলনা বিভাগীয় প্রধানের ভয়ে, প্রশাসনের কাছে নিরাপত্তা চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ভুক্তভোগী রবিউল ইসলাম, পিতা মোঃ মজিদ মোল্লা, আনোয়ার হোসেন, সজিব হোসেন, আলোম হোসেন প্রমুখ।সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, মোঃ আব্দুল মাজিদ মোল্লা, পিতা মৃত আব্দুল গনি মোল্লা, সাং- ডাকাতিয়া, থানা কোতয়ালি, জেলা যশোর। তিনি বলেন যে, আমার এলাকার আন্তর্জাতিক ইজি বাইক চোর সিন্ডিগেট খুলনা বিভাগীয় প্রধান চোর মোঃ রবিউল ইসলাম (৩৫) পিতা জামাল গাজি ওরফে (কানা আমাল) সাং নুরপুর, মাঠপাড়া, থানা কোতয়ালী, জেলা যশোর। এই চোর মাদক ব্যবসায়ীর সাথে জড়িত। বর্তমান একাধিক বার জেলা গোয়েন্দা ডিবি পুলিশের হাতে ধরা পরে। বর্তমানে কোতয়ালী থানার পুলিশ ৫ বার তাকে ধরেে। চোর রবিউলের বাড়ি থেকে ১ টা অটো ভ্যান ও ৬ টা অটো রিকশা উদ্ধার করে। আমি এই চোরের প্রতিবাদ করার কারণে চোর রবিউলের কিছু অসাধু পুলিশের সাথে যোগ সংযোগ আছে তাদেরকে দিয়া আমার বড় ছেলে মোঃ সজিব (২৩) মাদকের মামলা দিয়া হয়রানি করে। এ বিষয় নিয়া আমি প্রতিবাদ করিলে চোর সিন্ডিগেট এর প্রধান রবিউল ইসলামের সহচর সদস্য যারা আছে তাদের ভিতর ২ জন গত ১০ দিন আগে যশোর র‍্যাব ৬ তে ধরা পরে। সেই চোর সদস্যদের নিয়া আন্তর্জাতিক চোর সিন্ডিগেট এর প্রধান রবিউল আমার ছেলের নাম বলিয়া ফাসানোর চেস্টা করে। তখন আমার ছেলেকে র‍্যাব ৬ এর কোম্পানি কমান্ডার তার অফিসে ডাকাইয়া নেবার পর বিষয় টি প্রমান না হওয়ায় আমার ছেলেকে ছেড়ে দেয়। বর্তমান চোর সিন্ডিগেটের প্রধান রবিউল এর নামে বিভিন্ন থানায় একাধিক চোৱা মামলা রহিয়াছে। যার মধ্যে ঝিনাইদাহ থানায় চোরা মামলা নাম্বার ৩৫, তারিখ ২২/০৪/২০২১, যশোর কোতয়ালী মডেল থানায় মামলা রহিয়াছে একাধিক তার মধ্যে মামলা নাম্বার ৪৯, তারিখ ১৬/০৯/২০১৯ মামলা নাম্বার ৫৬, তারিখ ২৪/০৫/২০২২, মামলা নাম্বার ৪৭, তারিখ ১৭/০৫/২০২২, মামলা নাম্বার ১০ তারিখ ০৫/১১/২০২০। রবিউলের বাড়ি থেকে কোতয়ালি মডেল থানার এস আই ফজলু কয়েকটি অটো রিকশা ও উদ্ধার করে। এবং গত ০৪/০৯/২০২১ তারিখে কোতয়ালী মডেল থানার সেকেন্ড অফিসার মনিরুল ইসলাম আরো একটি অটো রিকশা উদ্ধার করে। আমি এই চোরের প্রতিবাদ করায় আমার ছেলেকে যে মিথ্যা অভিযোগে ফাসানো হইয়াছে এ বিষয় টা নিয়া আমার এলাকার গণ্য মান্য ব্যক্তিদের সাথে নিয়া ০৬ নং কাশিপুর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান শরিকুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করিলে চেয়ারম্যান সাহেব কোতয়ালী মডেল থানার ওসি সাহেবের সাথে যোগাযোগ করে ব্যবস্থা নেবার কথা বলেন এবং র‍্যাব কোম্পানি কমান্ডার চোর রবিউলের কোতয়ালী মডেল থানার মামলার নাম্বার পাইলে ব্যবস্থা নিবেন বলিয়া আশ্বাস দিছেন। তাই সাংবাদিক ভাই ও বন্ধুগণ আপনাদের কাছে আমার অনুরোধ আন্তর্জাতিক চোর সিন্ডিগেটের প্রধান রবিউল আমার বা আমার পরিবারের কোন মিথ্যা স্বরযন্ত্র করিতে না পারে সে বিষয়টি নিয়া আমি ও আমার পরিবার প্রশাসনে কাছে নিরাপত্তা চায়ছি।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।