যশোরের কেশবপুরে থানার ভিতর পড়ে থাকা জমিতে নজিরবিহীন সবজি চাষ করা হচ্ছে - দৈনিক আজকের দুর্নীতি
ঢাকাশনিবার , ১৩ আগস্ট ২০২২

যশোরের কেশবপুরে থানার ভিতর পড়ে থাকা জমিতে নজিরবিহীন সবজি চাষ করা হচ্ছে

নিজস্ব প্রতিবেদক
আগস্ট ১৩, ২০২২ ১১:২৬ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

যশোরের কেশবপুর থানার ভিতর পড়ে থাকা জমিতে নজিরবিহীন সবজি চাষ করা হচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর আহবানে সাড়া দিয়ে কেশবপুর থানা কম্পাউন্ডে সবজি চাষ করা করা হয়েছে। এতে থানা চত্বরে সবুজের সমারোহে মনোমুগ্ধকর পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে ।সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা দিয়েছেন দেশে কোনো জমি পতিত থাকবে না বলে প্রয়োজনীয় সবজি চাষ করার আহবান জানান। তারই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ বিপিএম (বার) নির্দেশক্রমে কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ বোরহান উদ্দীনের উদ্যোগে থানার কম্পাউন্ডের ভেতরে পড়ে থাকা জমিতে ঝোপ-ঝাড় পরিষ্কার করে সেখানে শাক-সবজির চাষ শুরু করেছেন। এছাড়াও বিভিন্ন ফলজ-বনজ গাছের চারা রোপণও করেছেন।সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কেশবপুর থানা কম্পাউন্ডের ভেতর পতিত প্রায় ২০ শতক জমিতে পরিষ্কার পরিছন্নতার পাশা-পাশি নিচু জায়গায় মাটি ভরাটের মাধ্যমে জমি উঁচু করে চাষের উপযোগীসহ সম্পূর্ণ বিষমুক্ত লাল শাক, কলমি শাক, পুঁই শাক, সবুজ শাক, বরবটি, ঢ়েঁড়স, সিম, কাঁচা মরিচ, টমেটো, বেগুন, মিষ্টি কুমড়া, করলা, ঝিংগা, পেঁপেসহ বিভিন্ন প্রকারের সবজি চাষ করেছেন। সবজি ক্ষেতের পরিচর্যা ও তদারকি করছেন থানার ওসি মোহাম্মদ বোরহান উদ্দীন নিজেই। তাকে সহযোগিতা করতে দেখা গেছে পুলিশ সদস্যদের।গত মাসের প্রথম দিকে সবজি চাষ শুরু করা হয়। বর্তমানে এসব সবজি খাওয়ার উপযোগী হয়ে উঠেছে। এছাড়া এই জমির চারপাশে প্রায় শতাধিক বিভিন্ন ধরনের ফলজ-বনজ গাছের চারা রোপণ করা হয়েছে। তাতে থানার কম্পাউন্ডের পরিবেশ এখন সবুজের সমারোহে রূপ নিয়েছে। এছাড়াও থানার পুকুর পাড়ে বড় বড় গাছে দীর্ঘদিন ধরে বিরল প্রজাতির পানকৌড়ি, বকসহ বিভিন্ন পাখির কলতানে সূর্য ডোবার আগ মুহূর্তে থানা কম্পাউন্ড মুখরিত হয়ে উঠে। এমনকি ভোরবেলায় পাখির কিচিরমিচির শব্দ শুনে ঘুম থেকে জেগে ওঠে অনেকেই।
কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ বোরহান উদ্দীন বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সম্প্রতি জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া ভাষণে স্ব-স্ব বাড়ির আঙ্গিনায় পতিত জমিতে সবজি চাষ করার আহবান জানান। এতে সাড়া দিয়ে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর মহাপরিদর্শক’র (আইজিপি) নির্দেশক্রমে এবং যশোর জেলা পুলিশ সুপারের দিকনির্দেশনায় থানার কম্পাউন্ডে পরিত্যক্ত জায়গা পরিষ্কার করে সেখানে বিভিন্ন শাক-সবজির চাষসহ ফলজ-বনজ গাছের চারা রোপণ করা হয়েছে। বর্তমানে ক্ষেতে সবজি দেখে আমি নিজেও আনন্দিত ও গর্বিত মনে করছি।সরকারের এই মহতি উদ্যোগকে আমি স্বাগত জানাই।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।